ইউটিউবের মাধ্যমে আয় করার সবচেয়ে সহজ পদ্ধতি এক নজরে দেখে নিন (ভিডিও সহ)

বর্তমান বিশ্বে অনলাইনে আয় করার সবচেয়ে সহজ পদ্ধতি ইউটিউব এর মাধ্যমে আয় ।  ইউটিউব এর মাধ্যমে বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বে বিপ্লব ঘটে যাচ্ছে প্রতিনিয়ত ।  ভিডিও শেয়ার করে দেশ দেশান্তরে ছড়িয়ে যাচ্ছে যেকোন জনপ্রিয় মুহুর্ত কিংবা ঘটনা ।

কিন্তু ইউটিউব এর মাধ্যমে আয় করার বিষয়ে পরিপূর্ণ গাইডলাইন না থাকলে এ সহজ পদ্ধতিটাও অনেক কঠিন হয়ে যায় ।  সহজ পদ্ধতিটা যেন সহজই মনে হয় আমি একটি পরিপূর্ণ গাইডলাইন দেয়ার চেষ্টা করবো, যেন আপনার কাছে শুরু থেকে শেষ পর্য ন্ত সম্পুর্ণ  প্রক্রিয়াটিই সহজ মনে হয় ।  চলুন শুরু করি...

বর্তমান বিশ্বে অনলাইনে আয়ের যত সহজ পদ্ধতি আছে, ইউটিউব তার অন্যতম । এখানে বাড়তি কোন স্কিল ছাড়াই শুধুমাত্র ভিডিও আপলোড করে আপনি আয় করতে পারছেন ।    আপনার অন্তত ১টি ভিডিও যদি র‌্যাংক হয়ে যায় তবে আপনাকে আর পায় কে ।


ইউটিউব এর মাধ্যমে আয় করতে হলে আপনার একটি জিমেইল একাউন্ট থাকতে হবে ।  জিমেইল একাউন্ট না থাকলে এ লিঙ্কে গিয়ে নতুন একটি জিমেইল একাউন্ট তৈরী করে নিন । 

জিমেইল একাউন্ট তৈরী হয়ে গেলে এ লিঙ্কে গিয়ে লগইন করুন ।   অতপর আরেকটি ট্যাব খুলে  এড্রেস-এ যান । সেখানে গিয়ে সাইন ইন-এ ক্লিক করুন ।  ব্যাস আপনি ইউটিউবে রেজিস্টার্ড ইউজার হয়ে গেলেন ।  এখন এ লিঙ্কে ক্লিক করে ভিডিওটি শীঘ্রই দেখে  আসুন ।   ভিডিওটি দেখে কিভাবে ইউটিউব এর চ্যানেল তৈরী করবেন এবং চ্যানেলটিতে কিভাবে ভিডিও আপলোড  করে আয়ের প্রক্রিয়া শুরু করবেন, তা জানতে ও শিখতে পারবেন ।   এবার চ্যানেলটি আয়ের উপযোগী করতে হলে এডসেন্স একাউন্ট তৈরী করে লিংক করতে হবে ।   এবার দেখে আসুন সে প্রক্রিয়াটি  এ লিঙ্কে ক্লিক করে  । 

আপনার জিমেইল একাউন্ট থেকে শুরু করে ইউটিউব একাউন্টে চ্যানেল তৈরীও হয়ে গেলো ।   ইউটিউব চ্যানেল-এ ভিডিও আপলোড করে চ্যানেলকে  আয়ের  উপযোগীও করে তোলা হলো । গুগল এডসেন্স একাউন্ট লিংক করে ভিডিও মনিটাইজ হয়ে গেলো ।  এখন আয় বাড়ানোর জন্য প্রয়োজন ভিডিও গুলোর ভিউ বাড়ানো । ভিউ বাড়ানোর জন্য  ভিডিওগুলো ভালোভাবে তৈরী করে ট্যাগ এবং ডেসক্রিপশন ব্যবহার করে আপলোড করতে হবে । 
এখন এ লিঙ্কে ক্লিক করে দেখে আসুন কিভাবে ট্যাগ ব্যবহার করে ভিডিও আপলোড করতে হয় এবং প্রতিটি ভিডিওতে একই সময় ট্যাগ যোগ করতে হয় ।  


এবার এক নজরে দেখে নিন সবগুলো ভিডিও এর ওভারভিউ । 





 আপনি একাধিক চ্যানেল তৈরী করে তাতে বিষয় ভিত্তিক ভিডিও আপলোড করতে পারেন ।

যেকোন চ্যানেল তৈরী করে সেটি মনিটাইজ কিভাবে করবেন তা এক নজরে দেখে আসুন ।  

মনে রাখবেন, এক্ষেত্রে আপনি যদি চ্যানেল সেটিংয়ে দেশ এর নাম বাংলাদেশ দিয়ে রাখেন তাহলে মনিটাইজ অপশন এনাবল করা যাবে না ।

এবার দেখে আসুন কিভাবে একই সময়ে সকল ভিডিওতে একসাথে মনিটাইজ অপশন চালু করবেন 

কিভাবে ব্যাংক একাউন্ট যোগ করবেন এবং টাকা উত্তোলন করবেন 

কিভাবে সাসপেন্ড হওয়া ইউটিউব চ্যানেল আবার ফেরত পাবেন 

কিভাবে ইউনিক ভিডিও বানাবেন-

ইউনিক ভিডিও বানাতে গেলে আপনাকে প্রচুর পরিশ্রম করতে হবে । যেকোন ভিডিও, মিডিয়ার যেকোন ঘটনা কিংবা অন্য কারো ভিডিও সরাসরি আপলোড করে দিলে কপিরাইট ইস্যুতে ধরা খাবেন ।   এছাড়াও এ কাজের জন্য আপনার সখের চ্যানেলটিও হারাতে পারেন ।   খুব সহজেই একটি চ্যানেল মালিক হয়ে গেলেন আপনি, যদিও এটি টিভি চ্যানেল না । কিন্তু নিয়ম কানুন মেনে না চললে ইউটিউব চ্যানেলও হারাতে পারেন ।

=== আপনার মোবাইল অথবা ক্যামেরা দিয়ে ভিডিও করুন যেকোন মুহুর্তের ছবি, যা ১০০% ইউনিক বলতে দ্বিধা নেই ।  মনে রাখবেন তাতে যেন কোন গানের কোন অডিও ক্লিয়ারলি ক্যাপচার না হয় ।   তাহলে শুধু অডিওর জন্য আপনার ইউনিক ভিডিওটি কপিরাইট ইস্যুতে পড়বে ।

=== অন্যের কোন ভিডিও বা মিডিয়ার কোন ঘটনা বা নিউজ দিতে গেলে সেটি ভালোভাবে এডিট করে লোগো লাগিয়ে ব্যানার সেট করে তারপর আপলোড দিতে পারেন ।

=== নিজের কম্পিউটারের কোন কাজের ভিডিও রেকর্ড  করে সেটি আপলোড করে দিতে পারেন ।

এভাবে আপনি  ইউনিক ভিডিও বানাতে পারেন ।

সবাইকে ধন্যবাদ । আজ এ পর্যন্তই ।  ভিডিও আপলোড করুন, আয় শুরু করুন ।   আপনার ভিডিও শেয়ার করুন বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায়, প্রথম প্রথম আয় কম হলেও ৩-৬ মাস পর ভালো আয় হওয়ার সম্ভাবনা আছে ।   আপনার জন্য রইলো অনেক অনেক শুভ কামনা ।

আমার ফেসবুক পেজ ।    অনলাইনে আয় বিষয়ক যেকোন সহায়তা পাওয়া যাবে ।

আমার ব্লগ ।    দেশ বিদেশের  নিত্য নতুন জব সম্পর্কে জানা যাবে ।

আমার চ্যানেল ।      সাবসক্রাইব করে নতুন নতুন ভিডিও সংগ্রহে রাখা যাবে ।

সবার প্রতি অনেক অনেক প্রীতি ও শুভেচ্ছা জানিয়ে আজকের মত এখানেই শেষ করছি ।  

Followers